অনৈতিক কাজের অভিযোগে জবি শিক্ষক বরখাস্ত

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ডি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা চলাকালে দায়িত্বে অবহেলা ও নৈতিকতা বিরোধী কাজের  অভিযোগে এক শিক্ষক ও এক কর্মচারীকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। আজ শনিবার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ, তথ্য ও প্রকাশনা দপ্তরের এক জরুরি সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ভর্তি পরীক্ষায় দায়িত্বে অবহেলা ও নৈতিকতাবিরোধী কাজের অভিযোগে ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের প্রভাষক দেওয়ান বদরুল হাসান ও একই বিভাগের কর্মচারী মো. এমদাদুল হককে বিশ্ববিদ্যালয়ের চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এছাড়া অভিযোগ তদন্তের জন্য আইন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সরকার আলী আক্কাসকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যবিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে দুই সপ্তাহের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. হেলেনা ফেরদৌসী এবং পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. নূরে আলম আব্দুল্লাহ। বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী রেজিস্ট্রার (আইন) অ্যাডভোকেট রঞ্জন কুমার দাস কমিটিকে সাচিবিক সহযোগিতা করবেন বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র জালিয়াতির অভিযোগ ওঠে। এতে ৫ জন পরীক্ষার্থীকে সূত্রাপুর থানায় হস্তান্তর করা হয়।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।