ছাতকে চার দিনে ৬ জনের অস্বাভাবিক মৃত্যু

রবিউল ইসলাম তারেক, ছাতক প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জের ছাতকে চার দিনের ব্যবধানে ৬জনের অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। এদের মধ্যে গলায় ফাঁস দিয়ে অষ্টাদশী বালিকা, যুবক-যুবতিসহ চারজন, কীটনাশক খেয়ে একজনও সড়ক দূর্ঘটনায় ১২বছরের এক বালক মৃত্যুবরন করেছে। জানা যায়, ৪নভেম্বর দিন-দুপুরে ওড়না দিয়ে ঘরের তীরের সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে দোলারবাজার ইউপির দক্ষিণ কুর্শী গ্রামের দিনমজুর মিরাস আলীর মেয়ে খুদেজা বেগম (১২)। ইউপি সদস্যও প্যানেল চেয়ারম্যান সফিক মিয়া তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

২নভেম্বর পৌরসভার তাতিকোনা গ্রামের খুশিমন দাসের মেয়ে বিসকা রানী দাস (১৫) রশি দিয়ে বসত ঘরের তীরের সাথে, ১নভেম্বর রাতে কালারুকা ইউপির খাইরগাঁও গ্রামের আফরোজ আলীর মেয়ে শিউলী বেগম (১৮) গোয়াল ঘরের পেছনের একটি আমগাছের ডালে ও ২নভেম্বর দোলারবাজার ইউপির আলমপুর গ্রামের আবদুল মছব্বিরের পুত্র বুরহান উদ্দিন (১৮) বসত ঘরের তীরের সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। ২নভেম্বর রাতে জাউয়া বাজার ইউপির ঝামক গ্রামের আব্দুল ওয়াহিদের মেয়ে আম্বিয়া বেগম (১৮) কীটনাশক খেয়ে আত্মহত্যা করে। এছাড়া গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ইউপির গোয়াশপুর গ্রামের ইদ্রিছ আলীর পুত্র মাছুম আহমদ (১২) মাকে সাথে নিয়ে গোবিন্দগঞ্জ ভিক্ষে করতে আসার পথে সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কের পূর্ব সুহিতপুর এলাকায় মিনিবাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যায়। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্যে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে। পুলিশ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে।

এব্যাপারে থানায় পৃথক ইউডি মামলা দায়ের করা হয়েছে। তবে কীটনাশক খেয়ে মৃত্যুসহ ৫টি আত্মহত্যার ঘটনার কোন কারন জানা যায়নি

 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।