চাকুরী স্থায়ী করনের দাবিতে- মাদারীপুর পল্লীবিদ্যুৎ সমিতির মিটার রিডার ও ম্যাসেঞ্জারদের অনিদিষ্ঠকালের জন্য কর্মবিরতি

মেহেদী হাসান সোহাগ- মাদারীপুর

চুক্তি হতে মুক্তি চাই, চাকুরী নিয়মিতকরন চাই। অন্ন চাই, বস্ত্র চাই, স্থায়ী চাকুরী চাই। এই শ্লোগানকে সামনে রেখে বৃস্থপতিবার সকাল থেকে মাদারীপুর পল্লীবিদ্যুৎ সমিতির চারটি উপজেলার চারটি যোনাল অফিসের মিটার রিডার ও ম্যাসেঞ্জারদের অনিধিষ্ঠকালের জন্য কর্মবিরতি ও অনশোন কর্মসূচি পালন করেছে।

কর্মসূচিতে অসাহায় চাকুরীজীবীরা বলেন’ আমরা আমাদের পরিবার নিয়ে চাকুরী করে বেচে থাকতে চাই। চাকুরী না থাকলে আমরা বেকার হয়ে যাবো। আমাদের পরিবার অসহায় হয়ে যাবে। চাকুরী আজ আছে কাল নাই, এমন নজির পৃথিবির কোথাও নাই। অনেকের অন্য চাকুরী করার বয়সও নেই। আমরা যতদিন চাকুরী করতে পারবো, ততদিন চাকুরীটি স্থায়ী ভাবে করতে চাই। বর্তমানে শ্রম বান্ধব সরকারের শ্রম আইন সংশোধনী হয়েছে। সেই আইনে উল্লেখ আছে ৪নং ধারার ১১নং উপধারায়- কোন স্থায়ী প্রতিষ্ঠানে কাজের জন্য অস্থায়ী কর্মচারী, দৈনিক ভিত্তিক ও চুক্তি ভিত্তিক কোন শ্রমিক নিয়োগ দেওয়া যাবেনা। অথচ বাংলাদেশের পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের আওতাধীন পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি সমূহ বৃহৎ বিতারনকারী সংস্থা/ স্থায়ী প্রতিষ্ঠান। এর কার্যক্রম স্থায়ী কিন্তু পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মরত মিটার রিডার ও ম্যাসেঞ্জার এর পদ অস্থায়ী চুক্তি ভিত্তিক। আমাদের যতদিন চাকুরী স্থায়ী করন করা হবে না, ততদিন আমরা এই কর্মবিরতীর কর্মসূচী পালন করে যাবো।

এই ব্যাপারে মাদারীপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার সৈয়দ কামরুল হাসান ক্যামেরার সামনে কথা বলতে না চাইলেও তিনি বলেন এই ব্যাপারটা আমারা প্রধান কর্মকর্তাদের জানিয়েছি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।