ঝালকাঠির রাজাপুরে মুক্তিযোদ্ধাকে পিটিয়ে হত্যা !

ঝালকাঠির রাজাপুরের আমতলা বাজারে আব্দুস ছালাম খান (৬০) নামে এক মুক্তিযোদ্ধাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। নিহত আব্দুস ছালাম খান পার্শ্ববর্তী পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়ার শিয়ালকাঠি এলাকার বাসিন্দা এবং অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ছিলেন।

হত্যার অভিযোগ পাওয়ায় মঙ্গলবার ভান্ডারিয়া মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে জানাজাস্থল থেকে ওই মুক্তিযোদ্ধার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

জানা যায়, সোমবার ঝালকাঠির রাজাপুরের সাতুরিয়া এলাকার ইউপি সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান বাচ্চু ও তার সহযোগি শাহ আলম হাওলাদার নামে দুই ব্যক্তি মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সালামকে ডেকে নিয়ে গ্রামের আমতলা ঈদগাহ মাঠের কাছে ওই মুক্তিযোদ্ধার ওপর হামলা চালায়। পরে হামলাকারীরা তাকে গুরুতর অবস্থায় ভান্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এ সময় হামলাকারীরা ওই মুক্তিযোদ্ধা সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়েছে বলে হাসপাতালে তার ভুয়া নাম ঠিকানা লিখে রেখে চলে যায়। সংবাদ পেয়ে স্বজনরা হাসপাতাল থেকে তাকে আহত অবস্থায় বাড়িতে নিয়ে আসার পর মঙ্গলবার ভোরে তিনি মারা যান।

ভান্ডারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, ‘সড়ক দুর্ঘটনা নয় হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন ওই মুক্তিযোদ্ধা এ রকম অভিযোগ পেয়ে আমি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রুহুল কুদ্দুসকে সঙ্গে নিয়ে মঙ্গলবার ভান্ডারিয়া মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে জানাজাস্থল থেকে ওই মুক্তিযোদ্ধার লাশ উদ্ধার করে রাজাপুর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করি।’

ঝালকাঠীর রাজাপুর থানার ওসি মুনির উল গিয়াস জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ওই মুক্তিযোদ্ধার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঝালকাঠি মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের ছেলে মুরাদ হোসেন বাদী হয়ে বাচ্চু হাওলাদার ও শাহ আলমসহ ১১ জনকে আসামি করে রাজাপুর থানায় হত্যা মামলা করেছেন।

banglatribune

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।