লিবিয়ায় ৪ বাঙালি পাচারকারী আটক, ৬৫ জন উদ্ধার

লিবিয়ায় অবৈধভাবে মানবপাচারকারী চক্রের চার বাংলাদেশি সদস্যকে আটক করেছে লিবিয়া আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। এ সময় ৬৫ জন নতুন বাংলাদেশি কর্মীকে বন্দিশালা থেকে উদ্ধার করা হয়।

সম্প্রতি তাদের আটক করা হয় বলে রোববার (০৬ নভেম্বর) লিবিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাসকে জানানো হয়।

রোববার সন্ধ্যায় বাংলনিউজকে বিষয়টি জানান, লিবিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাসে নিযুক্ত শ্রম সচিব আশরাফুল ‍ইসলাম।

লিবিয়ায় আটক বাংলাদেশিরা হলেন- রানা ভট্টাচার্য, মো. ওয়ালিউর রহমান, সুমন শরিফ ও হাফিজুল শেখ।

লিবিয়া আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর বরাত দিয়ে আশরাফুল ইসলাম জানান, আটকরা দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশ থেকে অবৈধভাবে লিবিয়ায় নতুন কর্মীদেরকে নিয়ে গোডাউনে আটকে রেখে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করতো।

তিনি বলেন, পাচারকারীরা লিবিয়া থেকে সাগর পথে বাংলাদেশি নাগরিকদের ইতালি পাঠাচ্ছে এমন খবরের ভিত্তিতে আটকদের আস্তানায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক ও ৬৫ জন নতুন বাংলাদেশি কর্মীকে বন্দিশালা থেকে মুক্ত করে দেশটির আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী।

আশরাফুল ইসলাম বলেন, লিবিয়াতে সরকারিভভাবে শ্রমিক পাঠানো বন্ধ থাকলেও মানবপাচারকারীরা মিথ্যা আশ্বাস দিয়ে শ্রমিকদের এদেশে এনে থাকে। এখান থেকে তাদেরকে ইতালি পাঠানোর প্রলোভনও দেখানো হয়। এরপর তাদেরকে আটক রেখে তাদের স্বজনদের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের অর্থ আদায় করা হয়।
তার মতে এই মানবপাচারকারীরাই এখন দূতাবাসের সবচেয়ে বড় মাথা ব্যথার কারণ হয়ে উঠেছে।

আটক চারজন লিবিয়ার প্রচলিত আইনে বিচারাধীন রয়েছেন বলেও জানান তিনি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।