বাতাসে পাক-ভারত রণ দামামা

পাক-ভারত সীমান্তের বাতাসে রণ দামামার আভাস পাওয়া যাচ্ছে। সীমান্তে উত্তেজনা আরো বৃদ্ধির আশঙ্কায় জম্মুর ১৯০ কিলোমিটার সীমান্ত থেকে রেঞ্জারদের সরিয়ে দিচ্ছে পাক সেনা। তার জায়গায় মোতায়েন করা হচ্ছে সেনাবাহিনীর সদস্যদের। সীমান্ত চৌকি আর ছাউনি থেকে পাক সীমান্ত রক্ষার দায়িত্বে থাকে রেঞ্জার বাহিনী। সেখানে সেনাবাহিনী মোতায়েন করেছে রাওয়ালপিন্ডির সেনা সদর দফতর।

বিষয়টি নজরে পড়েছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর। তারা জানিয়েছে ৮-৯ দিন ধরে পাকিস্তানের দিকে ভাল রকম ব্যস্ততা চোখে পড়ছে। গাড়ি বোঝাই করে সেনাসদস্যদের আসতে দেখা যাচ্ছে, সঙ্গে আসছে অস্ত্রশস্ত্র। জম্মু, রাজস্থান, গুজরাট ও পশ্চিমবঙ্গ সীমান্তে বিশেষ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত আধাসামরিক বাহিনী মোতায়েন করা প্রয়োজন। সেখান থেকে পাকিস্তান সরে আসায়, এটা পরিষ্কার, তারা যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছে।

শুধু বিএসএফ নয় কেন্দ্র থেকে জানা গেছে, রেঞ্জার চৌকিতে সেনা মোতায়েন করছে পাকিস্তান। আসছে অত্যাধুনিক অস্ত্রশস্ত্র। অর্থাৎ, এবার পাক সেনার মুখোমুখি হতে হবে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীকে। ভারতও ইতোমধ্যে সীমান্ত বরাবর ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে। বিশেষ করে উরি ঘটনার পর থেকে ভারত সেখানে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

দিল্লির ধারণা, পাক সেনা প্রধান রাহিল শরিফ অবসর না নেয়া পর্যন্ত এভাবেই প্ররোচনামূলক আচরণ করে যাবে পাকিস্তান, যাতে তার উত্তরসূরিও একই পথে হাটতে পারেন। পাক সেনা মোতায়েন হওয়ার পর থেকেই ভারতীয় এলাকায় সাধারণ মানুষের ওপর হামলা বেড়েছে বলে দিল্লি মনে করছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।