এগিয়ে ট্রাম্প – হিলারি ১০৪ , ট্রাম্প ১২৯

হিলারি ক্লিনটন অথবা ডোনাল্ড ট্রাম্প-যেকোনো একজনকে পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হিসাবে বেছে নিতে ভোট দিয়েছেন মার্কিন ভোটাররা। বিভিন্ন সংস্থার জরিপে বলা হয়েছে ৫৮তম এই নির্বাচনে প্রায় ৫৪ শতাংশ ভোটার ভোট দিয়েছেন।
মঙ্গলবার ভোটগ্রহণ শেষে এখন চলছে গণনা। বাংলাদেশ সময় আজ বুধবার সকাল ১০টা নাগাদ জানা যাবে কে হবেন যুক্তরাষ্ট্রের ৪৫ তম প্রেসিডেন্ট।

তবে নির্বাচনের ভোটের প্রাথমিক ফলাফলে রিপাবলিকান ও ডেমোক্রেটিক পার্টির দুই প্রার্থীর মধ্যে তুমুল লড়াই চলছে। প্রাথমিক ফলে ডেমোক্রেট প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনকে পেছনে ফেলে এগিয়ে গেছেন রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প।

তবে সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী হিলারি ১০৪ এবং ট্রাম্প ১২৯টি ইলেক্টোরাল ভোট নিশ্চিত করেছেন।

ইলিনয়, ভারমন্ট, ম্যাসাচুসেটস, রোড আইল্যান্ড, নিউ জার্সি, মেরিল্যান্ড, ডেলাওয়ার ও ডিস্ট্রিক্ট অব কলম্বিয়া অঙ্গরাজ্যে ভোটের প্রাথমিক ফলে হিলারির শিবিরের জয়ের খবর দিয়েছে সিএনএন। এই আটটি অঙ্গরাজ্যে জিতে ৬৮টি ইলেকটোরাল ভোট নিশ্চিত করেছে ডেমোক্রেটরা।
অপরদিকে ক্যান্টাকি, ইন্ডিয়ানা, ওয়েস্ট ভার্জিনিয়া, তিনেসি, আলাবামা, সাউথ ক্যারোলাইনা, মিসিসিপি আর ওকলাহোমা অঙ্গরাজ্যে জয় পেয়েছে রিপাবলিকানরা। এই অঙ্গরাজ্যগুলোতে ট্রাম্প ইলেকটোরাল ভোট পেয়েছেন ৬৬টি।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের গুয়াম দ্বীপের ভোটের ফল জানা গিয়েছিল। সেখানে হিলারি ৭১.৬৩ শতাংশ পেয়ে জয়ী হয়েছিলেন। আর ট্রাম্পের পক্ষে পড়েছে ২৪.১৬ শতাংশ ভোট। তবে গুয়ামে কোনো ইলেকটোরাল ভোট না থাকায় এটি মূল নির্বাচনে কোনো প্রভাব ফেলবে না।
তবে শুরুতেই গুরুত্বপূর্ণ তিনটি অঙ্গরাজ্যে জিতে ডোনাল্ড ট্রাম্প নির্বাচনী লড়াইয়ে এগিয়ে গেলেও হিলারি প্রবল পরাক্রমে এগিয়ে এসেছেন বলে মন্তব্য করেছে সংবাদমাধ্যমগুলো। অবশ্য হোয়াইট হাউসে ক্ষমতায় বসতে গেলে তাঁকে মোট ২৭০টি ইলেকটোরাল ভোট পেতে হবে। আর গোটা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ইলেকটোরাল ভোটের সংখ্যা ৫৩৮টি।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার উত্তর আমেরিকার বৃহত্তম রাষ্ট্র যুক্তরাষ্ট্রে সময়চক্রের ভিন্নতার কারণে ৫০ অঙ্গরাজ্যের একেকটিতে একেক সময় ভোটগ্রহণ শুরু হয়। গ্রিনিচ মান সময় বেলা ১১টা থেকে ভোট শুরু হয়। বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে এই ভোট চলে বাংলাদেশ সময় মধ্যরাত পর্যন্ত।
বিবিসির খবর অনুযায়ী, দেশটির সবগুলো অঙ্গরাজ্যে ভোটগ্রহণ শেষ হতে বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ৭টা বেজে যাবে। ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হওয়ার পর পরই অঙ্গরাজ্যগুলো থেকে সম্ভাব্য বিজয়ী প্রার্থী সম্পর্কে প্রাথমিক ধারণা পাওয়া যাবে।

এরপর বাকি থাকবে ইলেকটরদের নির্বাচন প্রক্রিয়া। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন প্রক্রিয়া অনুযায়ী, আগামী ১৯ ডিসেম্বর ইলেকটররা তাদের ভোটে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত করবেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।