জ্যান্ত গণেশের আশীর্বাদ নিতে লম্বা লাইন!

ভারতের পাঞ্জাব রাজ্যের জলন্ধরের গ্রামে ৬ বছরের এক ছেলে এখন গণেশ ঠাকুর হিসেবে পূজিত হচ্ছে। ছোট্ট ছেলেটা কিছু শারীরিক খুঁত নিয়ে জন্মায়। এই খুঁতেটাই ওকে গণেশের আসনে বসিয়ে দিয়েছে। ছয় বছরের এই বালককে গণেশের অবতার বলেই বিশ্বাস করেন সেই গ্রামের মানুষ। ওর নাম প্রাণষু।

গোটা গ্রামের কাছে ও জ্যান্ত গণেশ। রোজ ঈশ্বরের স্থানে বসিয়ে রীতিমতো পুজো করা হয়। মজার কথা, ওর স্কুলে শিক্ষকরাও ওকে পা-য়ে ফুল দিয়ে পুজো করে। রাস্তায় দেখলে সবাই হাতজোড়ো করে। এক গাল হেসে, দু-হাত তুলে আশীর্বাদ দেয়। যেমনটি আমরা মন্দিরে গিয়ে অভ্যেস মতো করে থাকি। তবে রোজ সকালে ওকে মেকআপ করতে হয়। ঠিকমত চলতে পারে না ও । তবে ভগবান বলে কথা। তাই প্রাণষুকে কেউ বিরক্ত করে না। যদি অভিশাপ দিয়ে দেয়। আরো একটা মজার ব্যাপার আছে। ওই গ্রামে অনেকের বাড়ির ক্যালেন্ডারে গণেশের যে ছবিটা আছে সেটা আসলে প্রাণষুর।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।