জাকির নায়েকের সংস্থা নিষিদ্ধ করার চক্রান্তকে প্রতিহত করার ডাক দিল জামাত ই ইসলামি হিন্দ

জাকির নায়েকের সংস্থার বিরুদ্ধে বিনা কারণে সরকারের একটা অংশ চক্রান্ত করে যেভাবে বন্ধ করতে যাচ্ছে তার বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ জানাল ভারতের মুসলিমদের সব চেয়ে সুসংগঠিত সৃজনশীল সামাজিক জামায়াতে ইসলামীর হিন্দ। ভারতের বিশিষ্ট এই সামাজিক-ধর্মীয় সংগঠন সরকারের এই সিদ্ধান্তের বিরোধীতা করে।জামায়াত-ই-ইসলামী হিন্দের সেক্রেটারি জেনারেল মুহাম্মদ সেলিম ইঞ্জিনিয়ার বলেছেন:
জাকিরের সংস্থা IRF নিষিদ্ধের বিবেচনা একটি রাজনৈতিক উইচ-হান্ট(জাদুকরী মৃগয়া)।

সাংবিধানিকভাবে স্বীকৃত অধিকার প্রয়োগ করতে না দিয়ে নিজেদের রাজনৈতিক স্বার্থে মুক্তকণ্ঠকে বন্ধ করা হচ্ছে। ধর্ম প্রচারের জন্য সাংবিধানিক অধিকার আছে।কিন্তু সেই অধিকার পালন করতে দেওয়া হচ্ছে না।আসলে এটা একটা সব সংখ্যালঘু বিশেষ করে মুসলিমদের জন্য একটা অশনি সংকেত।এই দেশে তাঁরা যাতে ধর্ম প্রচার না করে তার জন্য একটি সতর্কবাণী।এই কুখ্যাত পদক্ষেপ আমাদের ধর্মনিরপেক্ষ শক্তিকে দমাতে পারবে না বরং আমাদের সংবিধান ‘সন্নিবেশিত ধর্মীয় অধিকার রক্ষার জন্য এই অন্যায়ের মোকাবিলা করা হবে।”

জামাত-ই-ইসলামির সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন,”এটা লক্ষনীয় যে মহারাষ্ট্র স্বরাষ্ট্র দপ্তর জাকিরের বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ পায়নি এবং তাঁরা তদন্ত বন্ধের নির্দেশ দিয়েছিল। বাংলাদেশী সংবাদপত্রের প্রতিবেদনে সন্ত্রাসের জন্য ডঃ নায়েককে দায়ী করা হয়েছিল,কিন্তু এই ভিত্তিহীন অভিযোগের পর প্রধানমন্ত্রীর একজন ঘনিষ্ঠ সহযোগী সহ সকল বিশিষ্ট সংগঠন সম্প্রতি ডঃ নায়েকের পিস টিভি এবং IRF উপর দমন অভিযানের নিন্দা জানিয়েছে।জামায়াত তাই দাবী করছে যে,সরকার অবিলম্বে IRF নিষিদ্ধ থেকে বিরত থাকুক এবং টাকা সমস্যার সমাধান করে নাগরিকদের নাগরিক সমস্যার সমাধান করুক। দারিদ্র্য আমাদের দেশে মহামারীর মত ছড়িয়ে পড়েছে, শিক্ষা ও স্বাস্থ্যের উন্নতির মত মৌলিক সমস্যা সমাধানে মনোনিবেশ করার সিদ্ধান্ত নিক। আমরা নিশ্চিত যে, জাকিরের IRF উপর নিষেধাজ্ঞা বিচার পক্রিয়ায় টিকবেনা।আদালত এই মিথ্যার বিরুদ্ধে রায় দেবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।