ফিদেল ক্যাস্ত্রো, বাংলাদেশ ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

বিপ্লবী নেতা চে গুয়েভারা ও ফিদেল ক্যাস্ত্রো সারা বিশ্বের বিপ্লবী মানুষের সঙ্গী ছিলেন। যেখানেই অত্যাচার হয়েছে তার বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ করেছেন এই দুই বিপ্লবী। বিপ্লবের জন্য বলিভিয়ায় জীবন দিয়েছিলেন চে গুয়েভারা। অন্যদিকে নিজ দেশের নাগরিকদের বিপ্লবের প্রতিশ্রুতি রক্ষা করে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন ফিদেল ক্যাস্ত্রো।

১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে (তৎকালীন বিশ্বে গেরিলা যুদ্ধে) সমর্থন ছিল কিউবার তৎকালীন প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বে থাকা ফিদেল ক্যাস্ত্রো। ১৯৭৩ সালে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আলজেরিয়ায় জোট বিরোধী সম্মেলনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যোগ দিলে বিষয়টি আরো স্পষ্ট করে জানান কিউবার প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বে থাকা ক্যাস্ত্রো। স্বাধীনতা আন্দোলনে সরাসরি নেতৃত্ব দেয়া দুই নেতার আলোচনার পর ফিদেল ক্যাস্ত্রো বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ব্যক্তিত্বে মুগ্ধ হয়ে বলেন, আমি হিমালয় দেখেনি। কিন্তু আমি শেখ মুজিবকে দেখেছি। ব্যক্তিত্ব ও সাহসে তিনি হিমালয়। আমিও তাদের মধ্যে একজন, যে এই হিমালয়কে দেখেছি।

বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে এ সময় তার সখ্যতা গড়ে ওঠে। ১৯৭৫ সালে ১৫ আগস্ট যখন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে পরিবার সহ হত্যা করা হয়, তখন ফিদেল ক্যাস্ত্রো বেশ দুঃখ নিয়ে বলেন, ‘শেখ মুজিবের মৃত্যুতে বিশ্বের শোষিত মানুষ হারাল তাদের একজন মহান নেতাকে, আমি হারালাম একজন অকৃত্রিম বিশাল হৃদয়ের বন্ধুকে।’

আজ ২৬ নভেম্বর, বিদায় নিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সেই অকৃত্রিম বন্ধু।

ittefaq

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।