ঝিনাইদহে বন্দি নির্যাতনের অভিযোগে জেলারকে আদালতে তলব

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে বন্দি নির্যাতন ও বন্দিদের সাথে খারাপ ব্যাবহার করার অভিযোগ জেলার দিদারুল আলমকে স্বশরীরে আদালতে হাজির হয়ে ব্যাখ্যা দানের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। রোববার ঝিনাইদহ চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ জাকির হোসেন মিস ২৩/১৬ মামলার প্রেক্ষিতে এই আদেশ দেন। আদেশে ঝিনাইদহ জেলা কারাগারের জেলার দিদারুল আলমকে আগামী ৮ নভেম্বর আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আদেশে উল্লেখ করা হয়, গত ৫ নভেম্বর জুডিশিয়াল কনফারেন্সে ঝিনাইদহ জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোঃ নজরুল ইসলাম জেলা কারাগারে বন্দি নির্যাতন ও বন্দিদের সাথে খারাপ ব্যাবহার করার বিষয়ে তথ্য তুলে ধরেন। এ ছাড়া আদালতের গোচরিভুত হয় যে, জেলার দিদারুল আলম রিলিজ আদেশ সমুহ দিনের দিন আসামী মুক্তি না দিয়ে বেআইনী ভাবে আটকে রেখে পরের দিন আসামীদের মুক্তি দিয়ে থাকেন।

জেলার দিদারুল আলমের এহেন কর্মকার্ন্ড আইনের পরিপন্থি বলে আদালতের কাছে প্রতিয়মান হয়। ফলে দি কোড অব ক্রিমিনাল প্রসিডিউর এর ২৫ ধারার প্রদত্ত ক্ষমতা বলে কেন আপনার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশ দেওয়া হবে না তা আগামী ৮ নভেম্বর সকাল ১০টায় আদালতে হাজির হয়ে ব্যাখা প্রদানের নির্দেশ দিয়েছেন ঝিনাইদহ চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ জাকির হোসেন।

বিষয়টি নিয়ে ঝিনাইদহ জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোঃ নজরুল ইসলাম জানান, জেলার দিদারুল আলমের বিরুদ্ধে অভিযোগ সমুহ আসামী ও তার স্বজনরাই আইনজীবীদের কাছে তুলে ধরেন। বিষয়টি তিনি জুডিশিয়াল কনফারেন্সে তুলে ধরে প্রতিকার দাবী করেন।

উল্লেখ্য জেলার দিদারুল আলম আদালতের আদেশ থোড়াই কেয়ার করে জামিন প্রাপ্ত আসামী আটকে রেখে ঘুষ দাবী করেন। এ ছাড়া নতুন বন্দিদের উপর নির্যাতনসহ মানসম্মত খাবার পরিবেশনে তার বিরুদ্ধে বন্দিরা অভিযোগ করেছেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।