গাইবান্ধায় সাদুল্যাপুর উপজেলার সাবেক সেনা সদস্যকে গলাকেটে হত্যা

গাইবান্ধার সাদুল্যাপুর উপজেলার ধাপেরহাটে মো. আবদুর সবুর প্রমাণিক (৪৭) নামে সাবেক এক সেনা সদস্যকে গলাকেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

শুক্রবার রাতে উপজেলার ধাপেরহাট ইউনিয়নের মাওয়াগাড়ী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। শনিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ধাপেরহাট ইউনিয়নের মাওয়াগাড়ি গ্রামের বাগান থেকে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

আবদুর সবুর প্রমাণিক সাদুল্যাপুর উপজেলার ধাপেরহাট ইউনিয়নের মাওয়াগাড়ি গ্রামের আলহাজ মো. গোলজার রহমান প্রমাণিকের ছেলে। সবুর প্রমাণিক বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত সৈনিক ছিলেন।

সাদুল্যাপুর থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) রণি কুমার দাস জানান, শনিবার সকালে মাওয়াগাড়ি গ্রামের নিজ বাড়ির সামনের বাগান থেকে সবুর প্রমাণিকের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহতের গলায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহৃ রয়েছে। এছাড়া তার মাথায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

সবুর প্রমাণিকের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার বিকেলে বাজার করার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হন সবুর প্রমাণিক। রাতে তিনি বাড়িতে না ফেরায় অনেক খোঁজাখুঁজি করা হয়। শনিবার সকালে তার মরদেহ দেখে পুলিশে খবর দেয় স্থানীয়রা। পরিবারের দাবি, তাকে পরিকল্পিতভাবে গলাকেটে হত্যা করে মরদেহ ফেলে যায় দুর্বৃত্তরা।

সাদুল্যাপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ফরহাদ ইমরুল কায়েস ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, হত্যাকাণ্ডের বিভিন্ন দিক খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের শনাক্ত ও গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে। এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে সাদুল্যাপুর থানায় একটি হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে। মরদে উদ্ধারের পর ময়নাতদন্তের জন্য গাইবান্ধা আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান ওসি মো. ফরহাদ ইমরুল কায়েস।

জাগোনিউজ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।