গুজব এড়াতে শিক্ষামন্ত্রীর নব্য ফর্মূলা

নকল ও প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগের হাত থেকে রক্ষা পেতে আসন্ন জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে কেন্দ্রে প্রবেশের অনুরোধ জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

রবিবার সচিবালয়ে জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ অনুরোধ জানান শিক্ষামন্ত্রী।

নাহিদ বলেন, আধা ঘণ্টা আগে কেন্দ্রে ঢুকলে প্রশ্ন ফাঁসের গুজব থেকে শিক্ষার্থীরা মুক্তি পাবে। তারা স্বস্তিতে পরীক্ষা দিতে পারবে। সামনের দিনে ৩০ মিনিট আগে পরীক্ষার কেন্দ্রে প্রবেশের বিষয়টি বাধ্যতামূলক করা হবে বলেও জানান তিনি।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, মঙ্গলবার শুরু হতে যাওয়া অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষায় এ বছর ২৪ লাখ ১২ হাজার ৭৭৫ জন শিক্ষার্থী অংশ নেবে। গত বছরের তুলনায় এবার এ দুই পরীক্ষায় শিক্ষার্থী বেড়েছে ৮৬ হাজার ৮৪২ জন। গত বছর পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ২৩ লাখ ২৫ হাজার ৯৩৩।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এবার আটটি বোর্ডের অধীনে জেএসসিতে পরীক্ষার্থী ২০ লাখ ৩৮ হাজার ৩০৩ এবং মাদ্রাসা বোর্ডের অধীনে জেডিসিতে পরীক্ষার্থী ৩ লাখ ৭৪ হাজার ৪৭২।
শিক্ষামন্ত্রী জানান, ২০১৬ সালের জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় ছাত্রের তুলনায় ছাত্রীসংখ্যা বেড়েছে এক লাখ ৬৪ হাজার ২৯ জন।

জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা আগামী ১৭ নভেম্বর শেষ হবে জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ৩০ ডিসেম্বরের মধ্যে ফল দেয়া হবে। এবার অভিন্ন মূল্যায়ন পদ্ধতিতে পরীক্ষার খাতা দেখা হবে। এতে সারা দেশের স্কুল ও মাদরাসার মানের যে ভিন্নতা আছে তা কমে প্রমিতকরণ করা হবে।
নিজ স্কুলের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষায় সুবিধা দিতে অন্য কেন্দ্রের সঙ্গে শিক্ষকদের চুক্তির অভিযোগের বিষয়ে প্রশ্ন করলে মন্ত্রী বলেন, ‘এর কোনো সুযোগ নেই। আমাদের গোয়েন্দা সংস্থা আগের চেয়ে অনেক সক্রিয়। আর এমন অভিযোগ পেলে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। আগে অনেকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নের মান নিয়ে শিক্ষামন্ত্রীর এক বক্তব্য নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সমালোচনার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘শিক্ষকরা আমার মাথার মণি। তাদের প্রতি আমার শ্রদ্ধা আছে। তারা কী বলেছেন সে বিষয়ে আমি প্রতিক্রিয়া দিব না। তারা যদি আমাকে ডেকে কথা বলেন তাতেও আমি প্রশ্ন তুলব না। তবে আমার বক্তব্য মিডিয়াতে খণ্ডিতভাবে আসায় তারা প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন। এ জন্য ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে।’

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।