মন্দিরে হামলার মতো ধ্বংসাত্মক আচরণ বরদাশত করা হবে না: মার্কিন কংগ্রেস সদস্য

দিওয়ালির সময়ে বাংলাদেশে হিন্দু মন্দিরে হামলার নিন্দা জানিয়েছেন মার্কিন কংগ্রেসের প্রভাবশালী সদস্য গ্রেস মেং। তিনি বলেন, ‘এ ধরনের ধ্বংসাত্মক আচরণ বরদাশত করা হবে না

যুক্তরাষ্ট্রের এই কংগ্রেসওম্যান বলেন, ‘এ সব অপরাধের জন্য দায়ী ব্যক্তিদের অবশ্যই বিচারের মুখোমুখি করতে হবে। এই সহিংস ও ধ্বংসাত্মক আচরণ সহ্য করা হবে না।’

মার্কিন কংগ্রেসের দুই মেয়াদের এ সদস্য নিউ ইয়র্কের ষষ্ঠ কংগ্রেশনাল ডিস্ট্রিক্টের প্রতিনিধিত্ব করেন। এর মধ্যে ফ্লাশিং, কুইন্সের রেগো পার্কের মতো বাংলাদেশি অধ্যুষিত এলাকাগুলোও রয়েছে। এছাড়া তিনি হাউস ফরেন অ্যাফেয়ার্স কমিটি এবং এর এশিয়া বিষয়ক সাব কমিটিরও সদস্য।

মার্কিন কংগ্রেসের সদস্য গ্রেস মেং বলেন, ‘আমি বাংলাদেশে সংঘটিত সহিংসতার নিন্দা জানাই। হিন্দু মন্দিরগুলোতে ব্যাপক আক্রমণ এবং  হিন্দুদের ঘরবাড়িতে হামলা গ্রহণযোগ্য নয়। এটা বিশেষভাবে যন্ত্রণাদায়ক যে, দিওয়ালির সময়ে এসব ঘটনা ঘটছে।’

বাংলাদেশে মন্দিরগুলোতে হামলার নিন্দা জানিয়ে তিনি হিন্দু আমেরিকানদের সঙ্গে এ ব্যাপারে নিজের সহমতের কথা জানান।

গ্রেস মেং বলেন,‘ঢাকার ক্যাফেতে হামলার পরিপ্রেক্ষিতে সন্ত্রাসবাদ, সন্ত্রাসী ও মৌলবাদীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসব উদ্যোগের ফলে বাংলাদেশে সম্প্রতি ধর্মীয় সহিংসতার তীব্রতা কমেছে।

যুক্তরাষ্ট্রে দ্বিতীয় প্রজন্মের হিন্দুদের নিয়ে হিন্দু আমেরিকান ফাউন্ডেশন (এইচএএফ)- নামের একটি গ্রুপ পরিচালনা করেন জে কানসারা। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ সরকারকে অবশ্যই নতুন করে এ ব্যাপারে দৃষ্টি দিতে হবে। ফেসবুকে কে পোস্ট দিয়েছিল তার চেয়ে বরং চলমান তদন্তের মাধ্যমে সহিংসতার সঙ্গে জড়িত অপরাধীদের গ্রেফতারে মনোযোগ দিতে হবে।’

দুনিয়াজুড়ে হিন্দুরা যখন দিওয়ালি পালন করছেন সেই সময়ে সংখ্যালঘুদের ওপর এমন সহিংসতায় বিস্ময় ও হতাশা প্রকাশ করেন জে কানসারা।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।