হকাররা অবৈধ হলে, ছাত্রলীগ তাহলে কি?

হকার উচ্ছেদ অভিযানে প্রশাসন, পুলিশ, ম্যাজিষ্ট্রেটরা দায়িত্বরত থাকা অবস্থায় ছাত্রলীগের প্রকাশ্য অস্ত্র প্রদর্শন ও গুলিবর্ষনের ঘটনা প্রমান করে, রাষ্ট্র ও আইন কোন অপশক্তির হাতে জিম্মি ! পেটের দায়ে ঢাকার রাস্তার পাশে দুই-তিন গজ জায়গা জুড়ে অবৈধভাবে জীবন জীবিকা নির্বাহের খোঁজে রাস্তার হকাররা যদি অবৈধ হয়; তাহলে পুরো বাংলাদেশটাকে দখল করে বিনাভোটের অবৈধ দখলদাররা কি ?

হকাররা অবৈধ, তা সত্য; কিন্তু ছাত্রলীগ-যুবলীগ-আওয়ামীলীগের লোকজন ছাড়া ঢাকা শহরের দোকান বরাদ্দ পাওয়া থেকে শুরু করে নির্বিঘ্নে ব্যাবসা করার সুযোগ অন্য কারো আছে কি ? রাষ্ট্র, আইন সবকিছুকেই কেন আজ রাজনৈতিক পান্ডাদের পক্ষে? ছিন্নমূল মানুষদের জন্য ৫৫ হাজার বর্গফুটে দাঁড়ানোর জায়গাটা কোথায়?

গুলিস্তানে ডিএসসিসির উচ্ছেদ অভিযানে হকারদের অস্ত্র হাতে ধাওয়া করে ছাত্রলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক সাব্বির হোসেন (গোলাপি জামা গায়ে) এবং পাশে অস্ত্র হাতে ছাত্রলীগের ওয়ারী থানা শাখার সাধারণ সম্পাদক আশিকুর রহমান।

ফেইসবুক থেকে,
সৌজন্যে- ডক্টর তুহিন মালিক

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।