অতি আবেগী ধার্মিকতা আর কতকাল?

ভারতীয় উপমহাদেশ তথা ভারত ও বাংলাদেশে কিছু অতি আবেগী ধার্মিক আছে৷ স্ব-ধর্ম সম্পর্কে এদের আবেগ টা পুরা নিউক্লিয়ার বিস্ফোরকের মত, যখন তখন বিস্ফোরিত হয়; আর একবার বিস্ফোরন হলে আশে পাশের অন্য ধর্মের গরীব মানুষ গুলার বাড়ি ঘর, প্রাথর্না ঘর মাটির সাথে মিশিয়ে ফেলে৷ এদের ধর্ম পালন শুধুই ফেসবুকে আমিন বা সুবহানআল্লাহ বলায় সীমাবদ্ধ আর কাবা শরীফ বা মন্দিরের ছবির নিচে আমিন বা জয় অমক কি তমক (কোনদেব দেবীর নাম), অথবা ধর্মীয় কিছু অদ্ভুত ছবি টবি যেমন মাছের গায়ে আল্লাহু লেখা বা সাঈ বাবা বাতাসে ভেসে বেড়াচ্ছে, এমন কিছু পেলে লাইক শেয়ার মেরে পুন্যি কামানো (অশিক্ষিতের দল যদিও বুঝতে পারেনা ছবি গুলা ফটোশপে এডিট করা)৷

ভারতের কিছু হিন্দু আর বাংলাদেশ কিছু মোসলমান (এরা আসলে মুসলিম নয়, এরা মোসলমান)৷ ভারতের আবেগী হিন্দু গুলার ধর্ম পালন হচ্ছে ফেসবুকে বিভিন্ন গ্রুপ বানিয়ে নজর রাখা এলাকায় কার ফ্রিজে গরুর মাংস আছে, আর কে গরু রান্না করছে? এখানেও আবার একটা কিন্তু আছে যার ফ্রিজে গরু পাওয়া গেছে তার সামাজিক অবস্থান কেমন? সে কি গরীব, মধ্যবিত্ত নাকি কোটিপতি? যদি কোটিপতি হয় ঐখানে হাত লাগাবেনা, সে গরু খাক, হাতি খাক তার জন্য সব যায়েজ আছে, ঐখানে হাত লাগানো রিস্ক আছে, উল্টা কেস খেয়ে জেলে যেতে হবে ৷ আর যদি গরীব বা মধ্যবিত্ত হয়, অমনি ধর্ম পালনে ব্যস্ত হয়ে পড়ে, হাত পা বেধে পিটিয়ে মেরে পুন্যি কামিয়ে মা কে খুশি করে সগ্গে চলে যাবার ধান্দা৷

আর বাংলাদেশের মোসলমান নামের অতি আবেগী লোক গুলা নামাজ ও ঠিক মত পড়েনা, কোরআন ও ঠিক মত পড়তে পারে কিনা সন্দেহ আর হাদিস, কোরআন বোঝা তো দুরের কথা৷ ফেসবুকে আল্লাহ আমার রব, আল্লাহর সৈনিক, ইত্যাদি জাতীয় গ্রুপ বানিয়ে দিন রাত আমিন মারিয়ে বেড়ায় আর তাকে তাকে থাকে কোন এলাকায় কোন হিন্দু ইসলাম অবমাননা করেছে, মহানবীকে কটুক্তি করেছে হোক সেটা গুজব, সত্যি কি ফটোশপ, অত দেখার টাইম নাই, অমনি তাদের শরীরের পেশীতে বদরের যুদ্ধ উহুদের যুদ্ধের দামামা বাজতে থাকে, যদিও বদর বা উহুদ, কোন যুদ্ধের ই কারন বা ইতিহাস এরা কিছুই জানেনা৷ ধর্মীয় আবেগ বিস্ফোরন হয়ে এলাকায় যত মন্দির আছে, উপাসানালয় আছে ভেঙ্গে চুরে তছনছ করে ইমানী দায়িত্ব পালন করায় ব্যস্ত থাকে, জান্নাত কনফার্ম করেই বাড়িতে ফেরে৷

এইসব গোমুর্খ গুলা নিজেরাও অন্যায় করে পাশাপাশি ধর্মের ও বদনাম ছড়ায়, এদের সনাক্ত করে জেলে ভরে কঠিন সাজা দেয়া উচিত, যাতে করে কেউ এমন উগ্র বকধার্মিক হবার সাহস না পায়৷ কেউ প্রশ্ন করতে পারে, তবে কি ধর্মের নামে কেউ অপবাদ দিলে বা মিথ্যা লটিয়ে বেড়ালে প্রতিবাদ করবোনা? অবশ্যই করবো, মনে মনে একটা নিন্দা জানিয়ে দিবো, সৃষ্টিকর্তা মনের কথা বুঝে যাবে যে ব্যাপার টা আমার ভালো লাগেনাই ৷ বেশি খারাপ লাগলে পার্শবর্তী থানায় জানাবো ৷ আমি বা আমরা তো আর শাসক না, যে শাসন করে বেড়াবো ৷ যে শাসক তার যদি আইন কানুন থাকে সে শাসন করবে, না করলে সৃষ্টিকর্তা তার বিচার করবে, আমি আপনি নিরাপদ ৷

ফেইসবুক থেকে
লেখক: মাহবুব মানিক

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।