বর্তমান সরকার মানুষের মৃত থাকার অধিকারটাও কেড়ে নিয়েছে

একজন মানুষকে হত্যা করার চেয়েও গুম করা আরো অনেক নির্মম অপরাধ। নিহতের পরিবার তবু জানতে পারে তাদের প্রিয় মানুষটি আর কখনোই ফেরত আসবে না, তারা তাদের এই প্রিয় মানুষটির কবর জেয়ারত করতে পারে, সেই মানুষটির রেখে যাওয়া স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তিতে উত্তরাধিকার পেতে পারে।

কিন্তু যে মানুষটিকে গুম করা হয়, তার পরিবার অনন্তকাল ধরে তার ফিরে আসার অপেক্ষা করে, দরজায় প্রতিটি কড়াঘাতে আশাবাদী হয়ে দরজা খুলে আশাহতের বেদনায় কান্নায় ভেঙে পরে। পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম মানুষটিকে ফিরে না পাবার অনিশ্চয়তার সাথে সাথে তারা বঞ্চিত হয় তার ব্যাংকে সঞ্চিত টারা এবং অস্থাবর সম্পত্তির উত্তরাধিকার পাওয়া থেকে। কারণ, ওগুলো পেতে গেলে যে প্রমান করতে হবে, মানুষটি আর নেই!

Voice of America – VOA তে আজ বিরোধীদলীয় নেতাকর্মীদের গুম করার উপর Shaikh Azizur Rahman ভাইয়ের লেখা আর্টিকেলে আমার এবং বিএনপি যুগ্ম মহাসচিব এডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদ ভাইয়ের সাক্ষাৎকার প্রকাশিত হয়েছে।
সেখানে আমি বলেছি- “বিরোধী দলকে নিশ্চিহ্ন করতে এবং বিরোধী দলের রাজনীতি করার অধিকার কেড়ে নেবার জন্যই সরকার গুম করার পদ্ধতি বেছে নিয়েছে। যারা সরকারের মন্দ কাজ এবং অনিয়মের বিরুদ্ধে সোচ্চার, তাদেরকেই গুম করে দেয়া হয়। দেশে সেদিন আইনের শাসন ফিরে আসবে, সেদিন এইসব গুম হওয়া মানুষদের স্বজনরা বিচার পাবেন”।

BNP leader AKM Wahiduzzaman said enforced disappearances are taking place in the country “mostly to annihilate the opposition force”.
“These enforced disappearances are aimed at taking away the political rights of the opposition parties. Those opposition party members, who are critical of the government over many issues and are exposing its malpractices, are turning the victims of the enforced disappearance,” Wahiduzzaman told VOA. “The law of the land will come into effect to deal with the cases of enforced disappearances, when the regime changes. It will seek to ensure justice to the families who have lost their near and dear ones.”

AKM Wahuduzzaman

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।