কোন সভ্য দেশের প্রধানমন্ত্রীর কাজ খেলোয়াড়দের বাড়ী বানিয়ে দেয়া নয়

যখন কোন সমাজে একমাত্র নোবেল জয়ী সম্মানিত ব্যক্তিকে ঘাড় ধাক্কা দিয়ে তার নিজ হাতে গড়া বাড়ি থেকে বের করে দেয়া হয়, অথচ একজন খেলোয়াড়কে রাষ্ট্রীয় খরচে ঘর-বাড়ি তৈরী করে দেয়া হয়; তখন বুঝতে হবে ঐ সমাজ অন্ধকার কানাগলিতে হাবুডুবু খাচ্ছে। রাইট ট্র্যাকে নেই। ওটা বাজিকরদের হাতে।

কোন সভ্য রাষ্ট্রের প্রধানমন্ত্রীর কাজ নয় যে একজন খেলোয়াড় একদিন ভাল খেললেই তাকে রাষ্ট্রীয় খরচে ঘরবাড়ি তৈরী করে দিতে হবে। ক্রিকেট খেলা কোন পূনর্বাসন কেন্দ্র নয়। যেই কাজ বড়জোর একটা প্রাইভেট কোম্পানি করে দিতে পারে, ভোটের আশায় একজন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নিজ খরচে করে দিলেও তা মেনে নেয়া যায়। সেই কাজেও যখন প্রধানমন্ত্রী নাক গলান তখন বুঝতে হবে- জনগনের কাছে ঐ প্রধানমন্ত্রীর কোন জবাবদিহিতা নাই। কমিটমেন্ট নাই।

শ্রমিকের ঘাম ঝরানো রেমিটেন্স দিয়ে কেন একজন খেলোয়াড়ের ঘরবাড়ি তৈরী হবে? খেলোয়াড়ের কাজ খেলা, এটাই তার জব। এজন্য সে বেতন পায়। যে শ্রমিক খেয়ে না খেয়ে দেশে রেমিটেন্স পাঠায়, তার জন্য কয়টা ঘর-বাড়ি করে দিয়েছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী?

অর্থের অভাবে যে ছেলেটি বিশ্ব বিদ্যালয়ে ভর্তি হতে পারেনা, লেখাপড়া বন্ধ হয়ে যায়, তার জন্য কেন আপনার ভান্ডার খোলেনা? মেডিকেল কলেজে চান্স পেয়েও যে মেয়েটির দিনমজুর বাবা টাকার অভাবে ভর্তি করে দিতে সাহস পায়না তার জন্য কি আপনার কোনই রেস্পন্সিবিলিটি নেই? কই দেখলাম না তো!

মো: আল আমিন
পিএইচডি গবেষক
কোরিয়া

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।