রোহিঙ্গাদের ধর্ম পরিচয় ‘হিন্দু’ হলে আজকের সুশীলদের অবস্থান কেমন হতো ?

ধরেন রোহিঙ্গাদের ধর্ম পরিচয় ‘হিন্দু’। এতে বাংলাদেশ রাষ্ট্রে প্রবেশের বিষয়ে এখন যারা রোহিংা ঠেকাও বিষয়ে পৃষ্ঠপোশকতা করছেন তাদের ভূমিকা ভিন্নরূপ হত সন্দেহ নাই।

ফলে আইডেন্টিটি ম্যাটার্স। মুসলমানকে মুসলমান বলা দরকার, যেমন বৌদ্ধরে বৌদ্ধ। রোহিংারে রোহিংা বলা যেমন দরকার, তেমনি সাঁওতালদের সাঁওতাল।

আইডেন্টিটি লুকায়ে মানুষ বানানোর দরকার নাই, আইডেন্টিটি অস্বীকার করারও দরকার নাই। অস্বীকার জুলুমের অংশ। বরঞ্চ আলাপ করুন, এই আইডেন্টিটি সমেত তার উপর ঘটা নির্যাতনের বিরুদ্ধে আপনি লড়তে পারছেন কিনা…

Khandaker Raquib

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।