জাতীয় সংসদের চল্লিশোর্ধ সদস্যা মমতাজ এ কী পোষাক পড়লেন ?

সাবেক ভাড়া খাটুনী (মানে বিভিন্ন জায়গায় গান গাইতে ভাড়া করে নেওয়া হতো), পরবর্তীতে কণ্ঠশিল্পী , বহু স্বামীর পাণি গ্রহণকারী, বর্তমান পবিত্র সংসদের সম্মানিতা সদস্য মমতাজ ইদানীং শাড়ি ছেড়ে গেঞ্জি জাতীয় ড্রেস পরা শুরু করেছেন। চল্লিশোর্ধ একজন স্বাস্থ্যবতী রমণীর জন্যে এধরনের ড্রেস পরা শুধু বেমানানই নয়, কুরুচিপূর্ণ ও বটে। প্রথমবার চোখ পড়তেই যে কারো কাছে, এটা দৃষ্টিকটু মনে হবে।

কিন্তু আপনি যদি এ নিয়ে কিছু বলতে চান, “ব্যাপারটা অশ্লীল লাগছে।” তখনই একদল বেকুব এসে মন্তব্য করবে, ” ছি! মানুষের ড্রেস নিয়ে মন্তব্য করছেন! আপনার নজর খারাপ।” এমন একটা নিষ্পাপ নিষ্পাপ ভাব নেবে, যেন এরা শুধু মমতাজের মুখ ছাড়া অন্য কোথাও তাকায় নি!
আসলে মমতাজ শাড়ি পরলে এরা “বিনোদন” বঞ্চিত হবে বলেই এরা নিষ্পাপ ভাব নেয়।

কাওসার আলমের ফেসবুক থেকে নেয়া

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।