‘চোখ খুলেছেন খাদিজা, আগের চেয়ে অবস্থা ভাল’

সিলেটে বর্বরতার শিকার কলেজ ছাত্রী খাদিজা বেগম নার্গিসের শারিরিক অবস্থা উন্নতির দিকে। তিনি চোখ মেলে তাকিয়েছেন। ডান হাত ডান পা নড়াচড়া করেছে। তার সুস্থতা নিয়ে আশাবাদী চিকিৎসকরা জানিয়েছে, তাকে সুস্থ করে তোলতে সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তারা। আগামী আরও ৯৬ ঘণ্টা তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হবে। দুপুরে স্কয়ার হাসপাতালে খাদিজার সর্বশেষ অবস্থা গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। গতকাল সন্ধ্যায় ৭২ ঘণ্টার পর্যবেক্ষণ সময় শেষ হলেও আজ সকাল পর্যন্ত বাড়তি সময় পর্যবেক্ষণ করেছেন চিকিৎসকরা। দুপুরে আয়োজিত ব্রিফিংএ স্কয়ার হাসপাতালের এসোসিয়েট পরিচালক মির্জা নাজিম বলেন, খাদিজার ঠিকে থাকার সম্ভাবনা আমরা পেয়ে গেছি। হয়তো সে সুস্থ হয়ে উঠবে। বয়স কম থাকার কারণে পালস ভাল রয়েছে। চিকিৎসকদের আন্তরিকর্তা আর সৃষ্টিকর্তার অপার দয়ায় খাদিজার অবস্থা ভাল হচ্ছে। এ সময় নিউরো চিকিৎসক রেজাউর সাত্তার বলেন, খাদিজার অবস্থা আগের চেয়ে ভাল। সে চোখ খোলে তাকিয়েছে। ডান হাত এবং পা নাড়িয়েছে। আমরা তাকে আরও ৯৬ ঘণ্টা নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখব।

 

সিলেটের এমসি কলেজে পরীক্ষা দিয়ে বের হয়ে হামলার শিকার হন খাদিজা। তাকে প্রকাশে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে আহত করে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র বদরুল আলম। ঘটনার পর খাদিজাকে উদ্ধার করে প্রথমে ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে ওই দিন রাতেই ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। এখানে তার অস্ত্রোপচার করার পর কিকিৎসকরা জানিয়ে ছিলেন ৭২ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণের পর তার সর্বশেষ অবস্থা জানা যাবে। এদিকে বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে নানা কর্মসূচি পালিত হচ্ছে সিলেটে। ঘটনাস্থলে জনতার হাতে আটক বদরুল এখন জেল হাজতে রয়েছে। আদালতে সে ঘটনার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দিয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।