তাসকিনকে নিষিদ্ধ করা সেই ভারতীয় টিভি আম্পায়রই হারিয়ে দিল টাইগারদের – ২৬ টি রিভিউ বিপক্ষে!

এ যেন মুলতান টেস্টের সেই অশোকা ডিসিলভার নির্লজ্জ পক্ষপাতিত্বকেও হার মানাল। চট্টগ্রামের রোদ ঝলমলে আকাশে লুকানোর যখন কিছুই নেই ঠিক তখনই একের পর বিতর্কিত সব সিদ্ধান্তে টাইগারদেরকে হারিয়ে দিলেন ভারতীয় টিভি আম্পায়ার সুন্দরতম রাবি। এই সুন্দরতম রাভিই ইচ্ছে করে টি টুয়েন্টি বিশ্বকাপের সময় তাসকিনকে নিষিদ্ধ করেছিলেন।

এত কিছু জানার পরও কেন তাকে বাংলাদেশে আনা হলো সেটাই এখন মাথায় ধরছে না টাইগার সমর্থকদের। ইতিহাসের সবচেয়ে ভয়ানক বাজে আম্পায়ারিংয়ের পথে ২৬ টি রিভিউ আবেদন হয়েছিলো। যার সবগুলোতেই বাংলাদেশের বিপক্ষে সিদ্ধান্ত দিয়েছেন এই ভারতীয় টিভি আম্পায়ার। আগের দিন কামরুল ইসলামের ব্যাট বল না লাগলেও আউট দিয়েছন। বাংলাদেশ রিভিও নিলেই ইচ্ছে করেই বাংলাদেশের বিরুদ্ধে সিদ্ধান্ত দিয়েছেন এই রাভি । প্রথম ইনিংসে এক মইন আলীকেই ৫ বার বাঁচিয়ে দিয়েছেন এই কুৎসিৎ রাভি।

চোখের সামনে নিশ্চিত জেতা ম্যাচ হারতে দেখে মেনে নিতে পারেননি কোটি টাইগার সমর্থকরা। হার নিশ্চত হওয়ার পরপরই তাই এই আমম্পায়ারকে ইচ্ছেমত গাল মন্দ করতে থাকেন। অনেকে আবার নিচ্ছিলেন তাকে জুতাপেটা করার মত অ্যাকশনও। কেউ চাচ্ছিলেন কুশপত্তলিকা দাহ করতে। অনেকের মনেই সন্দেহ বাংলাদেশকে হারিয়ে দিতেই এই ডিআরএস।

এভাবে যদি মাঠের বাইরের খেলাতেই হারিয়ে দেয়া হয়ে তাহলে ক্রিকেট ওই তিন মোড়লই খেলুক। আক্ষেপের সুরে বলেন টাইগার প্রেমী এক তরুন। চুলন দেখে নেই ফেসবুকে এই আম্পায়রকে কিভাবে গাল মন্দ করেছেন টাইগার সমর্থকরা।

ফেসবুকে জিকরুল মালেক মন্তব্য করেছেন-

বাংলাদেশকে হারিয়ে দেওয়ার জন্য মাঠে নেমেছিল #আইসিসির_তিন_জারজ , কুমার ধর্মসেনা, ক্রিস গাফ্ফানি (মাঠের আম্পায়ার) এস রাভি (টিভি আম্পায়ার) , এই তিন মাদারচোদ আজকে মাঠে নেমেছিল #বাংলাদেশকে হারিয়ে দেওয়ার জন্য। কি আউট দিল তাইজুল, শফিউলকে??? #লাইনের ১ হাত বাইরে পড়া বলে কি আউট হয়??? , এই মাদারচোদরাই বিশ্বকাপে #রেন্ডিয়ার বিপক্ষে মাশরাফির লাইনে বল থাকার পরও আউট দেয় নাই। , এই টিভি আম্পায়ার বিশ্বকাপে তাসকিন এবং আরাফাত সানির বোলিং এ্যাকশন অবৈধ ঘোসনা করে,,,, , গতকাল #রাব্বির ব্যাটে না লাগলেও আউট হয়েছেন। প্রথম ইনিংশে #কুক মাটি থেকে বল তুলে আবেদন করলে #আম্পায়ার শালার ঘরে শালারা আউট ঘোষনা করে সাব্বিরকে। , সবার কাছে দুঃখিত। আবেগটা ধরে রাখতে পারলাম না।

জাহিদুল ইসলাম

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।