চট্টগ্রামে পিস্তল হাতে ছাত্রলীগের মারামারি

মারধর করার ঘটনাকে কেন্দ্র করে চট্টগ্রামের আগ্রাবাদে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। তবে এতো কেউ আহত না হলেও সংঘর্ষের কারণে সাধারণ লোকজনের মধ্যে ভীতিকর অবস্থার সৃষ্টি হয়।

মঙ্গলবার বিকেল ৫টা থেকে শুরু হয়ে এই মারামারি চলে অন্তত এক ঘন্টা। এই সময় আগ্রাবাদের সিজিএস কলোনিতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। গুলির শব্দে সবাই এদিক সেদিক ছুটোছুটি করতে থাকেন। পরে খবর পেয়ে পুলিশ এসে দুই পক্ষকে ছত্রভঙ্গ করে দিলে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে পরিস্থিতি শান্ত হয়ে আসে।

স্থানীয়রা জানান, মারামারিতে জড়িতরা দক্ষিণ আগ্রাবাদ ওয়ার্ডেরর আওয়ামী লীগ দলীয় কাউন্সিলর এইচ এম সোহেল ও ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা সাইফুল আলম লিমনের অনুসারী। এই দুইজনই আবার নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিনের অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

ঘটনার সময় কাউন্সিলর সোহেলের নেতাকর্মীরা শোডাউন দিতে ভিড় করলে সেখানে হানা দেয় লিমনের কর্মীরা। কিছুদিন আগে লিমনের এক কর্মীকে বেধড়ক পিটুনি দেয়ার জের ধরে তারা সোহেল গ্রুপকে ধাওয়া দেয়। একপর্যায়ে সংর্ঘষ ছড়িয়ে পড়লে পিস্তল হাতে দুই পক্ষের কয়েকজনকে দেখা যায় গুলি ছুঁড়তে।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে কাউন্সিলর এইচ এম সোহেল নিজেকে অসুস্থ বলে দাবি করে ঘটনার খোঁজ খবর করার কথা জানান। অন্যদিকে লিমন কিছুই জানেন না বলে জানিয়েছেন।

manabzamin

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।