বিমানবন্দরের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন তোলার সুযোগ নেই: ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার শেখ মারুফ হাসান

কিছু দুষ্কৃতকারী বিমানবন্দরের ভেতরে প্রবেশের চেষ্টা করে। তবে আনসার এবং এপিবিএনের সদস্যরা জীবন বাজি রেখে তাদেরকে বাধা দেয়। এ সময়ই ছুরিকাঘাতে একজন নিহত হয়। এতে নিরাপত্তা ব্যবস্থার ব্যত্যয় ঘটেনি’। নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন তোলার সুযোগ নেই বলে জানিয়েছেন, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার শেখ মারুফ হাসান।

সম্প্রতি বেশ কয়েকটি জঙ্গি হামলা ও হুমকির মধ্যে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নিরাপত্তাব্যবস্থা জোরদার করা হয়। তবে পুলিশি নিরাপত্তার মধ্যেই আনসার সদস্য নিহত হওয়ার ঘটনায় নিরাপত্তাব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে কিনা জানতে চাইলে তিনি এসব কথা বলেন।

এর আগে, হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাতে আহত চারজনের মধ্যে সোহাগ আলী নামে এক আনসার সদস্য নিহত হয়েছেন। রোববার রাতে আহত অবস্থায় তাকে কুর্মিটোলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

হামলাকারী বিমানবন্দরের ক্লিনার বলে শোনা যাচ্ছে, হামলারকারীর পরিচয় কিছু জানা গেছে কিনা জানতে চাইলে শেখ মারুফ হাসান বলেন, হামলার পর আহতদের হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। এর মধ্যে এখনো আমি ভেতরে প্রবেশ করতে পারিনি। নিহতের নাম সিহাব বলে জেনেছি। সে ক্লিনার কিনা তা নিশ্চিত না হয়ে বলা ঠিক নয়।

তিনি বলেন, কিছু দুষ্কৃতকারী বিমানবন্দরের ভেতরে ঢুকতে চেষ্টা করে। তবে আনসার এবং এপিবিএনের সদস্যরা তাদেরকে ঢুকতে বাধা দেয়। এ সময় ছুরিকাঘাতে এক আনসার সদস্য নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া আরো এক আনসার এবং দুই  এপিবিএন সদস্য আহত হয়েছেন। শুধু নিহতের নাম জানা গেছে সিহাব। আর কিছু জানা যায়নি।

ডিএমপি’র এ অতিরিক্ত কমিশনার বলেন, হামলাকারী নিজেও আহত হয়েছে। তাকে প্রহরা দিয়ে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। সেখান থেকে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।