পাকিস্তানি সেনাদের গুলিতে ১১ ভারতীয় সৈন্য নিহত

পাকিস্তানের সেনাপ্রধান জেনারেল রাহিল শরিফ দাবি করেছেন, গত ১৪ নভেম্বর পাকিস্তানি সেনাদের গুলিতে ১১ জন ভারতীয় সেনা নিহত হয়েছেন।

তবে ভারতের সেনাবাহিনী পাকিস্তানের এ দাবি নাকচ করে দিয়েছে। খবর ডন অনলাইন ও এনডিটিভির।
জম্মু ও কাশ্মীরের আন্তর্জাতিক সীমান্তরেখা লাইন অব কন্ট্রোলে বিনা উসকানিতে ভারতীয় সেনারা গুলিবর্ষণ করে। জবাবে পাকিস্তানি সেনারা পাল্টা গুলি চালালে ১১ ভারতীয় সেনা নিহত হয়।

জেনারেল রাহিল এ সময় জানান, নতুন করে শুরু হওয়া সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত ৪০-৪৪ জন ভারতীয় সেনা নিহত হয়েছে। এরআগে ভিমবার সীমান্তের নিয়ন্ত্রণ রেখায় ৭ পাক সেনাকে হত্যার দাবি করেছিল ভারত।

জেনারেল রাহিল বলেন, ভারতকে এ ক্ষতি মেনে নিতেই হবে। কারণ আমরাও তাদের কারণে আমাদের সেনাদের হারিয়েছি।
বুধবার ইসলামাবাদে পাক সেনাদের প্রশংসা করে তিনি বলেন, ‘সেনারা দেশের জন্য সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার করে অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।’

এদিকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে পাঠানো এক বার্তায় পাক সেনাপ্রধান বলেছেন, ‘আগ্রাসন কখনও সমস্যার সমাধান বয়ে আনবে না।’

১১ সেনা হত্যার বিষয়ে পাকিস্তানের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে ভারতীয় সেনাবাহিনী জানিয়েছে, পাকিস্তানের হামলায় গত সোমবার থেকে বুধবার পর্যন্ত তাদের কোনো সেনা সদস্য মারা যায়নি।

ভারতের উত্তরাঞ্চলীয় সেনা কমান্ডার এক টুইট বার্তায় দাবি করেন, ভারতীয় সেনাদের গুলিতে সোমবার ৭ পাক সেনা মারা গেলেও ভারতীয় কোনো সেনা গত তিন দিনে মারা যায়নি।

তিনি আরও বলেন, ইসলামাবাদে বুধবার সাংবাদিকদের কাছে ১৪ নভেম্বর যে ১১ ভারতীয় হত্যার দাবি করেছেন পাক সেনাপ্রধান, তা ডাহা মিথ্যা।

নতুন করে শুরু হওয়া এ সংঘর্ষে এ পর্যন্ত ৪০-৪৪ জন ভারতীয় সেনা হত্যার যে দাবি করেছেন জেনারেল রাহিল, তাও মিথ্যা বলে জানান ভারতের ওই সেনা কমান্ডার।

কাশ্মীরের উরিতে ১৯ ভারতীয় সেনা নিহতের পর থেকে সীমান্তে প্রায় পাক-ভারত সেনাদের মধ্যে গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটছে।

যুগান্তর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।