আ’লীগ নেতার কান কেটে নিল যুবক

রাজশাহী মহানগরীতে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আল-মামুনের (৪৮) ওপর হামলা চালিয়ে তার কান কেটে নিয়েছে এক যুবক।

শুক্রবার বিকালে নগরীর উত্তর নওদাপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

পরে স্থানীয়রা রাসেল আলী (৩৩) নামে ওই মাদকসেবীকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। রাসেল ওই এলাকার শফিকুল ইসলাম ওরফে শফির ছেলে।
আহত আল-মামুন মহানগর আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য। পেশায় তিনি একজন দলিল লেখক। রাজশাহী সদর দলিল লেখক সমিতির যুগ্ম সম্পাদকও তিনি।
মামুন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন। অস্ত্রোপচারের পর তার ডান কান পুরোটাই কেটে বাদ দিতে হয়েছে।
আল-মামুনের ছোট ভাই কোরবান আলী সুমন জানান, শুক্রবার আছরের নামাজ আদায় করে মুসল্লিদের সঙ্গে বাড়ি ফিরছিলেন আল-মামুন। এ সময় রাসেল আলী মুসল্লিদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকেন। মামুন তার প্রতিবাদ করেন।
এতে ক্ষিপ্ত হয়ে রাসেল বাড়ি থেকে একটি কিরিচ এনে তার ওপর হামলা চালায়। কিরিচের আঘাতে মামুনের ডান কান ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

এ সময় স্থানীয়রা রাসেলকে ধরে গণধোলাই দেয়। পরে তাকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।
নগরীর শাহ মখদুম থানার ওসি জিল্লুর রহমান জানান, মামুনের কানের কাটা অংশ উদ্ধার করা হয়েছে। তার পরিবারের মামলায় রাসেলকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।
এ ঘটনায় কোনো অস্ত্র উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি জানিয়ে ওসি বলেন, ‘রাসেল দাবি করেছেন, তিনি অস্ত্র নয়, দাঁত দিয়ে কামড়ে মামুনের কান কেটেছেন।’

jugantor.com

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।