ব্রাহ্মনবাড়িয়ার ঘটনায় শাহরিয়ার কবিরের ছাত্রশিবিরকে জড়ানোর নিন্দা ও প্রতিবাদ

ছাত্রশিবিরকে জড়িয়ে শাহরিয়ার কবিরের বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ

ব্রাহ্মণবাড়ীয়ায় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের উপর হামলার সাথে ছাত্রশিবিরকে জড়িয়ে শাহরিয়ার কবিরের ভিত্তিহীন বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির।

এক যৌথ প্রতিবাদ বার্তায় ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি আতিকুর রহমান ও সেক্রেটারী জেনারেল ইয়াছিন আরাফাত বলেন, আবাবোর ছাত্রশিবির নিয়ে অসত্য বক্তব্য দিয়ে বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন শাহরিয়ার কবির। কথায় কথায় জামায়াত-ছাত্রশিবিরকে জড়িয়ে মিথ্যাচার করা তার অভ্যাসে পরিণত হয়েছে, যা দেশবাসী বহুদিন যাবত দেখে আসছে। নাসিরনগরে হিন্দুদের উপর ন্যাক্কারজনক হামলাকে পুঁজি করে তিনি বিশেষ এজেন্ডা বাস্তবায়নে নেমে পড়েছেন। কোন রকম তথ্য প্রমাণ ছাড়াই শেখানো বুলির আওড়ানোর মত তিনি বলে দিয়েছেন পবিত্র কাবা শরিফের অবমাননা গ্রেপ্তারকৃত রসরাজ করেনি, তা শিবিরের ছেলেরা করেছে। যা যুগান্তর পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে। সামান্যতম তথ্য প্রমাণ ছাড়া এমন কান্ডজ্ঞানহীন বক্তব্য কোন সুস্থ ব্যাক্তি দিতে পারে বলে আমরা মনে করিনা। তিনি এই বক্তব্যের মাধ্যমে নিজের বিতর্কিত, ভারসাম্যহীন ও প্রতিহিংসা পরায়ন অবস্থানকে জাতির সামনে আরও পরিস্কার করেছেন।

আমরা তাকে মনে করিয়ে দিতে চাই, এই ঘটনায় জড়িত থাকার অপরাধে আওয়ামীলীগ তাদের স্থানীয় তিন নেতাকে বহিষ্কার করেছে। সুতরাং কারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে জাতির কাছে তা স্পষ্ট। ছাত্রশিবিরই বাংলাদেশের একমাত্র ছাত্রসংগঠন যারা রাত জেগে দিনের পর দিন হিন্দুদের মন্দির পাহারা দিয়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির উজ্জল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। ছাত্রশিবিরের সমাজকল্যানমূলক কাজের অংশ হিসেবে প্রতি বছর বহু ছাত্রকে সংবর্ধনা ও আর্থিক সহায়তা দেয়া হচ্ছে যাদের অনেকেই হিন্দু শিক্ষার্থী। ছাত্রশিবিরের দীর্ঘ পথ চলায় অন্য ধর্মের মানুষের সাথে কখনো সংঘাত হয়নি বরং দায়িত্বশীলতার উদাহরণ বিদ্যামান। এর পরও সামান্য ছুতায় অন্ধভাবে ছাত্রশিবিরকে শাহরিয়ার কবিরদের মত লোকদের চাতুরতা পূর্ণ অপপ্রচার ও চালবাজী দেশের প্রতিহিংসা ছড়িয়ে দেয়ার অপকৌশল ছাড়া কিছু নয়।

নেতৃবৃন্দ শাহরিয়ার কবিরের প্রতি আহবান রেখে বলেন, দেশবাসী আপনার একপেশে প্রতিহিংসামূলক মিথ্যাচার শুনতে শুনতে বিরক্ত ও ক্ষুদ্ধ। আপনার প্রতিটি বক্তব্য বিতর্ক আর হাস্যরস ছাড়া জাতিকে আর কিছু দিতে পারেনা। প্রমাণ চাইলে, এই বক্তব্যের ব্যপারে নিউজ লিংকে আপনার প্রতি ফেসবুক ব্যবহারকারীদের ধিক্কার ও মন্তব্য দেখে আসতে পারেন। দেশের মানুষ আপনাকে সুস্থ মস্তিকের মানুষ মনে করছে না। দেশে চলমান সংঘাত, রাজনৈতিক প্রতিহিংসা এবং সরকারের বিচারহীনতার পেছনে আপনাদের মত কিছু বিতর্কিত ব্যক্তির দায়িত্বহীন ভূমিকা অনেকাংশে দায়ি বলে দেশবাসী মনে করে।

নেতৃবৃন্দ বলেন, ছাত্রশিবির জন্মলগ্ন থেকেই নিয়মতান্ত্রিক পন্থায় পথ চলছে। সাম্প্রদায়িক সম্পৃতিতে ছাত্রশিবির দৃঢ় ভাবে বিশ্বাস করে এবং তা রক্ষায় দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। সুতরাং কোন বিতর্কিত ব্যক্তির ভারসাম্যহীন মিথ্যাচার জনগণ বিশ্বাস করবে না আর ছাত্রশিবিরের এগিয়ে চলাকে ব্যহতও করতে পারবেনা। আমরা আশাকরি ন্যায় বিচারের স্বার্থে তিনি তার এই অসত্য বক্তব্য প্রত্যাহার করবেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।