মিয়ানমারে গণহত্যা বন্ধের দাবিতে জামায়াতের বিক্ষোভ আগামী ২৩ নভেম্বর বুধবার

মিয়ানমারের মুসলমানদের উপর সে দেশের সরকারের পরিচালিত গণহত্যা বন্ধের দাবিতে আগামী ২৩ নভেম্বর বুধবার সারাদেশে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ পালনের কর্মসূচী ঘোষণা করেছে জামায়াত।

আজ ২১ নভেম্বর গণমাধ্যমে পাঠানো এক যুক্ত বিবৃতিতে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমীর মকবুল আহমাদ ও ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারী জেনারেল ডাঃ শফিকুর রহমান এই বিক্ষোভের ঘোষণা দেন।

জামায়াতে ইসলামীর আমীর মকবুল আহমাদ বলেন, “মিয়ানমার সরকার সে দেশের মুসলমানদের উপর গণহত্যা চালিয়ে তাদের নিশ্চিহ্ন করার গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। মিয়ানমার সরকার সে দেশের মুসলমানদের উপর গণহত্যা চালিয়ে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার চরমভাবে লংঘন করেই চলেছে।

সম্প্রতি কয়েক দিনে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী সে দেশের মুসলমানদের উপর হেলিকপ্টার থেকে গুলি বর্ষণ করে তাদের উপর নির্বিচারে গণহত্যা চালাচ্ছে। সেনাবাহিনীর গুলিতে ইতোমধ্যেই ৩৫০ জন মুসলমান নিহত হয়েছেন এবং আহত হয়েছেন অসংখ্য মুসলমান। মুসলমানদের তিন হাজারের অধিক বাড়ী-ঘর জ্বালিয়ে দিয়েছে এবং গৃহহীন হয়েছে ত্রিশ হাজারের অধিক লোক। বহু নারী ধর্ষিতা হয়েছেন।

তিনি আর ও বলেন, মিয়ানমারের মুসলমানদের উপর সেনাবাহিনী অবর্ণনীয় জুলুম, অত্যাচার-নির্যাতন চালাচ্ছে। সেখানে দেশী-বিদেশী কোন সাংবাদিককেই খবর সংগ্রহের জন্য ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না। ফলে সেখানকার মুসলমানদের উপর সরকারের গণহত্যা ও জুলুম-নির্যাতনের প্রকৃত খবর বিশ্ববাসী সঠিকভাবে জানতে পারছে না। জাতিসংঘসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা মিয়ানমারের মুসলমানদের উপর সে দেশের সরকারের পরিচালিত গণহত্যা বন্ধ করার আহ্বান জানানো সত্তে ও সে দেশের সরকার তা গ্রাহ্য করছে না।

মিয়ানমারের মুসলমানদের মানবাধিকার ও মানবতা বিপন্ন হয়ে পড়েছে। তারা জীবন বাঁচানোর জন্য বাংলাদেশে প্রবেশ করার চেষ্টা করলেও বাংলাদেশ সরকার তাদের বাংলাদেশে প্রবেশ করতে দিচ্ছে না। এমনকি জাতিসংঘ এবং বিশ্বের বিভিন্ন মানবাধিকার সংস্থার পক্ষ থেকে মিয়ানমারের মুসলমানদের বাংলাদেশে প্রবেশের সুযোগ দানের আহ্বান জানানো সত্তে ও বাংলাদেশ সরকার তা উপেক্ষা করছে।
মকবুল আহম্মদ বলেন, মিয়ানমারের গৃহহারা ও বিতাড়িত মুসলমানদের জীবন বাঁচানোর জন্য বাংলাদেশে প্রবেশ করতে দেয়ার বিষয়টি মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে বিবেচনা করার জন্য তিনি বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। মিয়ানমারের মুসলমানদের উপর পরিচালিত গণহত্যা ও জুলুম-নির্যাতন বন্ধের লক্ষ্যে মহান আল্লাহর কাছে কুনুতে নাজেলা পড়ার জন্য তিনি জামায়াতের নেতা-কর্মী, সমর্থক ও শুভাকাক্সক্ষীসহ দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান।

এছাড়া ঘোষিত এ কর্মসূচি সর্বাত্মকভাবে সফল করার জন্য তিনি বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সকল শাখা ও দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান।

timenewsbd.com

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।