এবার বিস্ফোরিত গ্যালাক্সি এস৭ এজ

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একজন গ্রাহককে নোট ৭ এর বদলে দেওয়া এস৭ এজ ফোনটি চার্জ দেওয়ার সময় এ দূর্ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে আইএএনএস।

এ যাবৎ স্যামসাংয়ের সর্বাধিক বিক্রিত স্মার্টফোন গ্যালাক্সি এস৭। বিস্ফোরণের পর পরই অভিযোগকারী ব্যক্তি তার ক্ষতিগ্রস্ত ফোনটি নিয়ে দেশটির একটি টেলিযোগাযোগ অপারেটরের দোকানে যান। তিনি দাবি করেন মাত্র দুই সপ্তাহ আগেই নোট ৭ এর ‘নিরাপদ ব্যাটারি’সহ দ্বিতীয় সংস্করণের স্মার্টফোনের বদলে তাকে নতুন এই ফোনটি দেওয়া হয়।

এটি স্যামসাংয়ের আসল চার্জার দিয়েই রাতভর চার্জ দেওয়া হয়েছিল বলেও জানান তিনি।

সেপ্টেম্বরেও যুক্তরাষ্ট্রের ওহাইও অঙ্গরাজ্যের একজন নির্মাণ কর্মী তার গ্যালাক্সি এস৭ এজ বিস্ফোরণের জন্য স্যামসাংয়ের বিরুদ্ধে মামলা করেন। নিউআর্ক, নিউজার্সির জেলা আদালতে স্যামসাং ইলেকট্রনিকস আমেরিকা-এর বিরুদ্ধে জালিয়াতি, ওয়ারেন্টি এবং সরল বিশ্বাস ভঙ্গের অভিযোগে মামলাটি দায়ের করা হয়।

“বিস্ফোরণের ফলে এস৭ এজ ব্যবহারকারীর শরীরের একাধিক স্থানে পুড়ে গেছে এবং এর জন্য তাকে যন্ত্রণাদায়ক চামড়ার গ্রাফট এর মধ্য দিয়ে যেতে হবে”- এমনটাই জানিয়েছে সংবাদমাধ্যমটি। ইতোমধ্যেই নাভাডা, পেনিসিলভেনিয়া ও ক্যালিফোর্নিয়া- এই তিন অঙ্গরাজ্য থেকে তিনজন গ্রাহক অগ্নিঝুঁকিপ্রবণ নোট ৭ ডিভাইস সম্পর্কে অভিযোগ করেছেন এবং ক্ষতিপূরণের মামলার হুমকি দিয়েছেন স্যামসাংয়ের বিরুদ্ধে।

বাদীপক্ষের আইনজীবী কো ইয়াং-ইয়েল আদালতের সামনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, স্যামসাং নোট ৭-এর উৎপাদন বন্ধ এবং তার বদলে অন্যান্য মডেল এর ফোন দেওয়ার ঘোষণায় ভোক্তাদের অধিকার লঙ্ঘিত হয়েছে।

“ভোক্তারা তাদের বিক্রয়োত্তর সেবা থেকেও বঞ্চিত হয়েছেন। স্যামসাংয়ের এ ধরনের পরিস্থিতির কারণে সৃষ্ট মানসিক সঙ্কটের জন্য ক্ষতিপূরণ দেওয়া উচিত”, বলেন ইয়েল।

চলতি মাসের শুরুতে বাজার থেকে পুরোপুরিভাবে নোট ৭ উঠিয়ে নেয় ও চিরতরে এই হ্যান্ডসেট তৈরি বন্ধ করে দেয় স্যামসাং।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।