নাসিরের চেয়ে শুভাগত ভালো স্পিনার: প্রধান নির্বাচক

নির্বাচকদের কাছে এখন অনেকটাই পেছনে পড়ে গেছেন নাসির হোসেন। এই অলরাউন্ডারের তাই জায়গা হয়নি নিউ জিল্যান্ড সফরের আগে প্রস্তুতি ক্যাম্পের দলে। প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীনের মতে, বড় দৈর্ঘ্যের ম্যাচে নাসিরের চেয়ে ভালো স্পিনার শুভাগত হোম।

অনেক দিন ধরে বাংলাদেশের সীমিত ওভারের স্কোয়াডে থাকলেও একাদশে জায়গা পাচ্ছিলেন না নাসির। নানা সময়ে প্রশ্ন উঠেছে সেটি নিয়ে। এবার তিনি জায়গা হারিয়েছেন স্কোয়াডেই। নিউ জিল্যান্ড সফরের জন্য তাকে রাখা হয়েছে স্ট্যান্ড বাই তালিকায়।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে নাসিরকে বাইরে রাখার কারণ ব্যাখ্যা করলেন প্রধান নির্বাচক।

“একই পজিশনের জন্য বেশ কজন ক্রিকেটার আছে। ছয়-সাত নম্বর জায়গাটায় ওয়ানডেতে এখন আমাদের মোসাদ্দেক এসে গেছে। টেস্টে সাব্বির ভালো শুরু করেছে। তার পর শুভাগতও আছে, নাসিরের চেয়ে ওর স্পিন ভালো। তাহলে দেখুন, নাসির এখানে চার নম্বরে চলে গেছে।”

“এর বাইরেও সৌম্য আছে। নিউ জিল্যান্ডের জন্য ওকে আমরা অলরাউন্ডার হিসেবে ভাবছি। হয়ত নীচে ব্যাট করাতে পারি। সব মিলিয়ে নাসিরকে রাখা যায়নি। একই জায়গার জন্য এতজনকে রাখতে চাইনি আমরা।”

সাব্বির ও মোসাদ্দেকের ব্যপারটি বোধগম্য হলেও নাসিরকে বাইরে রেখে শুভাগতকে রাখার ব্যাপারটি দুর্বোধ্য অনেকের কাছেই। ৮ টেস্ট খেলে ফেললেও এখনও কার্যকর কিছু করতে পারেননি শুভাগত। ৬৩.২৫ গড়ে উইকেট মাত্র ৮টি। একটি অর্ধশতকে ২৪৪ রান করেছেন ২২.১৮ গড়ে।

প্রধান নির্বাচক জানালেন, বড় দৈর্ঘ্যের ম্যাচে বোলিং বিবেচনায় এগিয়ে আছেন শুভাগত।
“আমরা শুভাগতকে অফ স্পিনার হিসেবেই বিবেচনা করছি। বড় দৈর্ঘ্যের ম্যাচে নাসিরের চেয়ে শুভাগতর বোলিং আরও কার্যকর। তাছাড়া এটা শুধু ক্যাম্পেরই দল। চূড়ান্ত দলে শুভাগত থাকতেও পারে, নাও থাকতে পারে। আপাতত বোলিংয়ে নাসিরের চেয়ে শুভাগত আমাদের কাছে এগিয়ে।”

চূড়ান্ত দল নিয়ে প্রধান নির্বাচকের কথাটি অবশ্য ইঙ্গিতবহ। দেশের মাটিতে টেস্টে চার স্পিনার নিয়ে খেললেও নিউ জিল্যান্ডে সেই সম্ভাবনা সামান্যই। সাকিব আল হাসান ও মেহেদী হাসান মিরাজের সঙ্গে স্কোয়াডে বড়জোর তৃতীয় স্পিনার হিসেবে থাকতে পারেন হয়ত তাইজুল ইসলাম।

শুধু বোলিংয়ে পিছিয়ে থাকা নয়, নিউ জিল্যান্ডে নাসিরের ব্যাটিং সামর্থ্য নিয়েও সংশয় আছে নির্বাচকদের।

“নিউ জিল্যান্ডের কন্ডিশনে নাসির ব্যাট হাতে কতটা ভালো করতে পারবে, আমরা ঠিক নিশ্চিত নই। আমরা দেখেছি বাউন্সি উইকেটে পেস বোলিংয়ে একটু দুর্বলতা আছে ওর। সৌম্য আবার এই ধরনের উইকেটে ভালো ব্যাট করে।”

নিউ জিল্যান্ড সফরের আগে অস্ট্রেলিয়ায় প্রস্তুতি ক্যাম্প করবে বাংলাদেশ। ঘোষিত ২২ জনের দলে নাজমুল হাসান শান্ত ও এবাদত হোসেনকে রাখা হয়েছে মূলত ‘ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রামের’ অংশ হিসেবে। বাকি ২০ জন থেকেই গড়া হবে তিন সংস্করণের দল।

bdnews24

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।