ব্রাজিলের কাছে ৩-০ গোলে উড়ে গেল আর্জেন্টিনা !

চির প্রতিদ্বন্দ্বীদের মাঠে এসে উত্তেজনাকর ম্যাচে একেবারে শুয়ে পড়লো আর্জেন্টিনা। ব্রাজিলের কাছে ৩-০ গোলে হেরে রীতিমতো নাস্তানাবুদ গত বিশ্বকাপের রানার-আপরা। এটি এমন এক ম্যাচ ছিল যে ম্যাচে হেরে রাশিয়া বিশ্বকাপের টিকিট পাওয়া রীতিমতো কঠিন হয়ে গেছে মেসিদের জন্য।

খেলার শুরুতে বেলো হরিজোন্তের মিনেইরো স্টেডিয়াম রীতিমতো গ্লানিমাখা ইতিহাস ছিল ব্রাজিলের জন্য। গত বিশ্বকাপের সেমি ফাইনালে এই মাঠেই চ্যাম্পিয়ন জার্মানির কাছে ৭-১ গোলে উড়ে গিয়েছিল নেইমার জুনিয়র বাহিনী। কিন্তু, সেই গ্লানি, সেই চাপ উড়িয়ে দিয়ে প্রথমার্ধের ২৫ মিনিটেই চালকের আসনে বসে যায় ব্রাজিল। সেটা ছিল শুরু, এরপর প্রথমার্ধের শেষ মিনিটে নেইমার জাদু আর দ্বিতীয়ার্ধের ৫৮ মিনিটে পাওলিনহোর দুর্দান্ত গোলে ঘরের মাঠে ৩-০ গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছেন তিতের শিষ্যরা।

বার্সেলোনার ক্লাব ফুটবলে জাদুকরী খেল দেখালেও এ ম্যাচে মেসি ছিলেন নিজের ছায়া হয়ে। আর্জেন্টিনাও তাই যেন পথহারা দল!
বিশ্বকাপ ফুটবলের লাতিন অঞ্চলের বাছাই পর্বের এই ক্লাসিক ম্যাচে আর্জেন্টিনা ২-০ গোলে পিছিয়ে পড়ে আক্রমণকেই বেছে নেয়। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধের ৫৮ মিনিটে পাল্টা আক্রমণে রেনাতোর বাড়ানো চমৎকার পাস থেকে দলকে আবারও এগিয়ে নেন পাওলিনহো। শেষদিকে আর্জেন্টাইনরা মরিয়া চেষ্টা চালালেও খেলার স্কোরলাইন শেষ অবধি এটাই, ব্রাজিল ৩-আর্জেন্টিনা ০।

এর আগে প্রথমার্ধে রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে চোখ ধাঁধানো নৈপুন্য দেখিয়ে ব্রাজিলকে শুরুতেই এগিয়ে নেন কৌটিনহো। আর প্রথমার্ধের একেবারে শেষ মুহুর্তে আরেক গোল করে ব্রাজিলকে আনন্দে ভাসান তাদের গোল্ডেন বয় নেইমার। ফলে প্রথমার্ধ শেষে ব্রাজিল এগিয়ে থাকে ২-০ গোলে।
ঘরের মাঠে খেলার পুরো সুবিধাই আদায় করে নিয়েছে ব্রাজিল। নিজেদের দর্শকদের সামনে প্রথমার্ধের ২৫ মিনিটে নেইমারের পাস ধরে বাম দিক দিয়ে দুর্দান্তভাবে আর্জেন্টিনার বক্সে ঢুকে পড়েন ফিলিপ্পে কৌটিনহো কোরিয়া। এরপর আর্জেন্টিনার আগুয়ান রক্ষণভাগকে একেবারে বোকা বানিয়ে বক্সের একেবারে মাথা থেকেই ডান পায়ের সজোরে শটে পরাস্ত করেন আলবিসেলেস্তে গোলরক্ষককে। এরপর প্রথমার্ধের একেবারে শেষ মুহূর্তে দ্বিতীয় গোলটি করেন নেইমার।

এর আগে লাতিন গ্রুপে দিনের প্রথম খেলায় কলম্বিয়া-চিলির ম্যাচটি শেষ হয়েছে গোলশূন্য ড্রতে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।