আগামী বছর থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা-বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) চেয়ারম্যান

অবশেষে আগামী বছর থেকেই পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা শুরু করতে যাচ্ছে সরকার। রাষ্ট্রপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর মো. আবদুল হামিদ নিজেই এই উদ্যোগটি নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান।

বাংলা ট্রিবিউনকে আব্দুল মান্নান বলেন, ‘রাষ্ট্রপতির নির্দেশেই বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষার বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণে যথাযথ উদ্যোগ নিতে গত মঙ্গলবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে চিঠি দেওয়া হয়েছে।’

উল্লেখ্য, প্রতি বছর লাখ লাখ শিক্ষার্থীকে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দেওয়ার জন্য ছুটে বেড়াতে হয় দেশের এপ্রান্ত থেকে ওপ্রান্তে। এতে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের দুর্ভোগের শেষ থাকে না। ফলে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও ইউজিসি একই ক্যাটাগরির সব বিশ্ববিদ্যালয়ে মেডিক্যাল কলেজের মত সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার আহ্বান করে আসছিল। তবে অভিযোগ রয়েছে, প্রথম থেকেই বড় বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর এ বিষয়ে অনিহা দেখাচ্ছিল। এই অনিহার নেপথ্যে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ‘ভর্তি ফরম বাণিজ্য’ রয়েছে বলেও অভিযোগ রয়েছে।
ইউজিসি চেয়ারম্যান অধ্যাপক আব্দুল মান্নান

শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের দুর্ভোগ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি ফরম বাণিজ্যের বিষয়টি রাষ্ট্রপতি অনুধাবন করে গত ২ নভেম্বর ইউজিসি অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদেরকে আহ্বান করেন।

গত সোমবার (১৪ নভেম্বর) ইউসিজির চেয়ারম্যান অধ্যাপক আব্দুল মান্নানের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল রাষ্ট্রপতির কাছে ইউজিসির বার্ষিক প্রতিবেদন-২০১৫ পেশ করেন। ওই প্রতিনিধি দল সূত্রে জানা গেছে, প্রতিনিধি দলের সঙ্গে আলাপচারিতায় উচ্চশিক্ষার মান নিশ্চিত করতে নানা বিষয়ে আলোচনার পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার বিষয়ে অভিপ্রায় ব্যক্ত করেন রাষ্ট্রপতি।

এ বিষয়ে অধ্যাপক আব্দুল মান্নান বৃহস্পতিবার সকালে বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিতভাবে ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার জন্য রাষ্ট্রপতি অভিপ্রায় ব্যক্ত করেছেন। তার অভিপ্রায় মানেই নির্দেশ। তিনি খুব তাড়াতাড়ি পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর উপাচার্যদের সঙ্গে পৃথক দিনে এ বিষয় নিয়ে আলোচনায় বসবেন।’

তিনি বলেন, ‘ইতোমধ্যে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর উপাচার্যরা এই পদ্ধতিতে পরীক্ষা নিতে একমত হয়েছেন। এরই ধারাবাহিকতায় ইউজিসি গত মঙ্গলবার (১৫ নভেম্বর) এ ব্যাপারে যথাযথ উদ্যোগ নিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে চিঠি দেওয়া হয়েছে।’

banglatribune

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।